শিক্ষিকা মাকে বাঁচাতে পিঠে সিলিন্ডার বেঁধে হাসপাতালে নিলেন ছেলে

দৈনিক শিক্ষাবার্তাঃ করোনা আক্রান্ত মায়ের হঠাৎ শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় পিঠে সিলিন্ডার বেধে মাকে নিয়ে হাসপাতালে ছুটে গেলেন ছেলে। গতকাল বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক সার্জেন্ট তৌহিদ টুটুল এসংক্রান্ত একটি ছবি পোষ্ট করলে তা মুহুর্তে ভাইরাল হয়ে যায়।বরিশাল পটুয়াখালী রোডে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা থেকে ছবিটি তোলেন তিনি।

সার্জেন্ট তৌহিদ টুটুল জানান, শনিবার তার ডিউটি ছিলো বরিশাল পটুয়াখালী রোডে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন জিরো পয়েন্ট রোডে। ৩ টার দিকে খেয়াল করে একব্যাক্তি মোটর সাইকেলে এক নারীকে নিয়ে যাচ্ছেন। তার শরীরে অক্সিজেন সিলিন্ডার বাধা এবং তা থেকে অক্সিজেন নিচ্ছে পেছনে বসে থাকা নারী।

এই দৃশ্য দেখে তিনি মোটর সাইকেলটি না থামিয়ে চলে যেতে ইশারা দেন। কিন্তু নিজের মোবাইলে চিত্রটি ধারন করেন। পরে তিনি তার ফেসবুকে ছবিটি শেয়ার করেন। তিনি বলেন, মানুষকে সচেতন করতে তিনি ছবিটি শেয়ার করেন। ছবিটি শেয়ারের অল্প সময়ের মধ্যেই তা ভাইরাল হয়ে যায়।

তৌহিদ টুটুল জানান, ছবিটি শেয়ারের পর থেকে অনেক মানুষ তাদের পরিচয় জানতে চান।পরে খোজ নিজে জানা গেছে মোটর সাইকেল চালানো ব্যাক্তিটি কৃষি ব্যাংক ঝালকাঠি শাখার কর্মকর্তা জিয়াউল হাসান। পেছনে বসা ছিলেন তার মা রেহানা পারভীন। রেহানা পারভীন নলছিটি বন্দর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা। কয়েকদিন আগে তিনি করোনা আক্রান্ত হন। হঠাৎ করে তার শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় ছেলে জিয়াউল হাসান তাকএ শেরে বাংলা মেডিকেলে নিয়ে যান।